ফেসবুক আইডি হ্যাক থেকে রক্ষার উপায়

37
Smiley face

বাচ্চা থেকে বয়স্ক যদি কাউকে প্রশ্ন করা হয় সোশ্যাল সাইট বলতে কাকে বোঝানো হয়? তবে এক বাক্যে উত্তর দেবে ফেসবুক। এই উত্তর হাতে হাতে শুধু হাতে গোনা কয়েকজনের নয় গোটা বিশ্বের মানুষ এই একই উত্তরে বিশ্বাস করেন। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ফেসবুক ব্যবহারে রীতিমতো আসক্ত হয়ে পড়ছেন এর ব্যবহারকারীরা।

আর এই ফেসবুকে মানুষ তাদের একান্ত ব্যক্তিগত অনেক তথ্যই সংরক্ষণ করে থাকেন। আর শখের এই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যদি হ্যাক হয়ে যায় তাহলে বিড়ম্বনার শেষ থাকে না। নিজের ব্যক্তিগত অনেক তথ্য ও ছবি চলে যায় দুষ্কৃতিকারীদের কাছে।

তাই আসুন জেনে নেয়া যাক ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক থেকে রক্ষার উপায়:

কখনো পাসওয়ার্ড কারো সাথে শেয়ার করবেন না। এমন পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করুন যা অনুমান করা কঠিন। কখনোই নিজের নাম বা সাধারণ শব্দ পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করা উচিত না। ফেসবুক পাসওয়ার্ডটি শুধু মাত্র ফেসবুকের জন্য ব্যবহার করা উচিত। অন্য কোনো সিকিউরিটির ক্ষেত্রে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করলে তা প্রকাশ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

অন্য কেউ যেন আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগ ইন করতে না পারে তাই অতিরিক্ত নিরাপত্তা (Login Approvals) ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য ফেসবুকের Two step verification পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন।

ই-মেইল অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখতে হবে।

ব্যবহার শেষে ফেসবুক একাউন্ট থেকে অবশ্যই লগ আউট করতে হবে।

নিউজ ফিডে অথবা মেসেঞ্জারে সন্দেহজনক কোনো লিঙ্ক দেখলে সাথে সাথে রিমুভ করে দিতে হবে। কনফার্ম না হয়ে যেকোনো গেম, অ্যাপ্লিকেশন এবং অন্যদের পাঠানো কোনো লিঙ্কে ক্লিক করা উচিত না।

ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বিকল্প ই-মেইল আইডি অ্যাড করুন। যদি আপনার প্রোফাইল কোনো কারণে হ্যাকও হয়ে যায় সেক্ষেত্রে ফেসবুক আপনার দ্বিতীয় ই-মেইলে আপনার অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধারের জন্য তথ্য পাঠাবে।

অপরিচিত কারোর ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট গ্রহণ করার আগে তার প্রোফাইল চেক করে নিতে হবে।

একেবারে ব্যক্তিগত কোনো ছবি, তথ্য (ফোন নম্বর, ঠিকানা, ই-মেল এড্রেস ইত্যাদি) ফেসবুকে শেয়ার করা উচিত না।

আপনার পোস্ট কারা দেখতে পারবে তা সতর্কভাবে নির্বাচন করতে হবে।

পাবলিক কম্পিউটারে (সাইবার ক্যাফে, ল্যাব ইত্যাদি) ফেসবুক ব্যবহার না করাই ভালো। তবে ব্যবহার করতে হলে ব্যবহারের পর লগ ইন হিস্ট্রি ডিলিট করে দিতে হবে।


Smiley face