রসগোল্লাকে আমের জিলাপি বিক্রির অনুমতি দিল জেলা প্রসাশক

1108
Smiley face

রাজশাহীতে কাঁচা আমের জিলাপি বিক্রি করতে পারবে ‘রসগোল্লা’ আমের জিলাপিতে আম কম থাকার কারণে জরিমানা গুণা রাজশাহীর মিষ্টিজাতীয় খাবারের প্রতিষ্ঠান ‘রসগোল্লা’ তাদের জিলাপি উৎপাদন করতে পারবে। রোববার দুপুরে প্রতিষ্ঠানটির স্বত্ত্বাধিকারী আরাফাত রুবেলকে এই অনুমতি দিয়েছেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল বলেন, ‘রসগোল্লা জিলাপি করতে পারবে। আম দিয়ে, জাম দিয়ে- যা দিয়ে করবে পারবে। কিন্তু যে ফুড গ্রেড কালারটি তারা ব্যবহার করছিল সেটা না দেওয়ার জন্য বলে দেওয়া হয়েছে।’

রসগোল্লার স্বত্ত্বাধিকারী আরাফাত রুবেল জানান, একই দিনে পর পর দুই সংস্থা অভিযান চালিয়ে তার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করার বিষয়ে কথা বলতে রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কাছে গিয়েছিলেন। তিনি যে ফুড গ্রেড ব্যবহার করেন তা যে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সেই সনদও নিয়ে গিয়েছিলেন। তবে জেলা প্রশাসক বলেছেন, সবুজ রঙটা নিয়ে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে। এটা যেন তারা ব্যবহার না করেন। এটা না দিয়ে তারা আম দিয়ে জিলাপি করতে পারবেন।

গত বছরের শেষের দিকে যাত্রা শুরু করে নানা স্বাদের মিষ্টি নিয়ে এসে সাড়া ফেলে দেয় রসগোল্লা। রোজার শুরুতে তারা জানান দেয়, আম দিয়ে তৈরি হচ্ছে জিলাপি। তারপর রাতারাতি এই জিলাপি নিয়েও সাড়া পড়ে যায়। তবে শুক্রবার বিকালে জিলাপিতে ‘আমের পরিমাণ কম’ থাকার কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়। যদিও জিলাপির খামিরে কী পরিমাণ আম থাকতে হবে তা বলে দেওয়া হয়নি।

অভিযান শেষে ভোক্তা অধিকারের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারফ বলেছিলেন, ‘ফুড গ্রেড কালারটা সঠিক আছে। কিন্তু খামিরে আমের পরিমাণ কম। তাই জরিমানা করা হয়েছে।’ একই দিন সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত গিয়ে এই জিলাপি বিক্রির কারণে আবার ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করে রসগোল্লাকে। একই দিনে একই প্রতিষ্ঠানে দুইবার অভিযান চালানো নজিরবিহীন। এই অভিযানকে উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত বলছিল রসগোল্লা।


Smiley face