সবুজ ঘাসের সতেজতায় আইডিয়াল এগ্রো ফার্ম

156
Smiley face

আসন্ন কুরবানি ঈদকে সামনে রেখে গরু পরিচর্চায় ব্যস্ত খামারিরা। রাজধানী ঢাকার অদুরে নারায়ণগঞ্জ চর সৈয়দপুর শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে গড়ে উঠেছে আইডিয়াল এগ্রো ফার্ম। বরাবরের মতো এবারও তারা প্রাকৃতিক ভাবে চাষ করা সবুজ ঘাস আর দেশিয় শশ্য খাইয়ে লালনপালন করেছে বিভিন্ন জাতের শতাধিক উপর গরু।

গরুর মুখের সামনেই লাগানো ঘাস।

গত শুক্রবার আইডিয়াল এগ্রো ফার্মে গিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন জাত ও বয়সের হৃষ্টপুষ্ট গরু। এর মধ্যে শাহীওয়াল, লাল বলদ, মীরকাদিমের সাদা হাসা, ভুট্টি, দেশাল, নেপালী গীর, উলবেড়িয়া ষাঁড়, দেশাল ও বিশেষ আকর্ষন দেশি ক্রস ব্রাহামা। তাদের সবগুলো গরুই স্বাস্থসম্মত ও রোগ জীবাণু মুক্ত।

কথা হয় আইডিয়াল এগ্রো ফার্মের স্বত্বাধিকারী আরাফাতুর রহমান বান্টির সাথে তিনি জানান, খামারের বেশিরভাগ গরুই তিনি বাছুর অবস্হায় সংগ্রহ করে তা দীর্ঘদিন ধরে তিনি নিজস্ব খামারে লালনপালন করে আসছেন। গত বছরের মতো এই বছরেও তাঁর খামারে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে শতাধিক গরু তিনি লালনপালন করেছেন। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন হাট বাজার ও প্রান্তিক কৃষকদের কাছ থেকে গরু গুলো সংগ্রহ করেছেন বলে জানান। বর্তমানে গরুর খাবারের দাম বৃদ্ধির কারনে তার প্রভাব কুরবানির বাজারে পড়তে পারে বলে তিনি ধারনা করেন।

সারি সারি হৃষ্টপুষ্ট গরু।

আইডিয়াল এগ্রো ফার্ম ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন স্তরে সাজানো ছোট বড় ৪ টি শের্ডে বিভিন্ন জাতের গরু। সাইজ, স্বভাব ও আকার ভেদে বিভিন্ন নামে গরু গুলো সাজানো রয়েছে। আছে রাম ছাগল, রাজহাঁস, গারল ভেড়া ও বিভিন্ন জাতের কবুতর। খামরটিতে আরও আছে বিদেশি জাতের কুকুর। যা তাদের নিজস্ব তত্বাবধানে বাচ্চা প্রজনন করা হয়। শীতলক্ষ্যা নদীর কোল ঘেষে বিশুদ্ধ বাতাসে খামারটিতে গরুগুলো একে অপরের সাথে আনন্দে মেতে রয়েছে। দেখে মনে হয় যেন কোলাহল রাজধানীর বুকে যেন এক টুকরো গ্রাম। নদীর পারে আরেকটি শের্ডে রয়েছে উন্নত জাতের কিছু গাভী গরু। সেখানে দেখলাম এক রাখাল ভাই দুধ দহনে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

মীরকাদিমের সাদা হাসা ধবল গরু।

কথা হয় আইডিয়াল এগ্রো ফার্মের দেখভালের দায়িত্বরত রাকিবের সঙ্গে রাকিব বলেন, গরু গুলোকে আমরা পরম ভালোবাসা আর মমতায় লালনপালন করেছি। প্রতিদিন প্রত্যেকটি গরুকে দুই বেলা গোসল করাই এবং পাশাপাশি কাঁচা ঘাস ও পুষ্টিকর খাবার দেই। দানাদার খাবারের মধ্যে রয়েছে – গম, ভুট্টা, ধান, খৈল, ডাউল, মিনারেল, লবন ও বিভিন্ন ডাউলের ভুষি।   রাকিব আরও বলেন, প্রতিটি গরু আমরা খামারে আনার পর কৃমিনাশক করি তারপর বিভিন্ন রোগের ভ্যাকসিন টিকা প্রয়োগ করি। আমাদের প্রতিটি গরুই বেশ সুন্দর রোগ জীবাণু মুক্ত।

গীর ও উলবেড়িয়া ষাঁড়।

খামারটি ঘুরে আরও জানা যায়, কেউ যদি গরু পছন্দ করে বুকিং দিয়ে রাখেন তবে ঈদের আগ পর্যন্ত গরুর দেখভাল ও খাবার দাবার সম্পূর্ণ ফ্রি। এর জন্য অতিরিক্ত কোন টাকা খরচ করতে হবেনা। আর গরু বুকিং অর্ডার ও ক্রয় বিক্রয় সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য আইডিয়াল এগ্রোর ফেইসবুক পেজে গিয়ে মেসেজ করলেই অটোমেটিক উত্তর আসবে।                    পেজের লিংকঃ-  https://www.facebook.com/idealagrobd/

https://www.facebook.com/idealagrobd/


Smiley face