রাজশাহীতে বিমান চলাচল শুরু

95
Smiley face

তিন মাস ধরে বন্ধ থাকার পর অবশেষে রাজশাহী শাহ্ মখদুম বিমানবন্দরে ফ্লাইট চালুর অনুমতি দিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। ২৬ মার্চ বন্ধ হয় করোনার কারণে। পরবর্তিতে চালু করার চেষ্টা হলেও চিকিৎসক না থাকায় চালু করা সম্ভব হয়নি। অবশেষে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করে এ রুটে আজ থেকে চালু হচ্ছে রাজশাহী বিমানবন্দর।

@

তথ্য মতে, দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় গত ২৪ মার্চ সন্ধ্যায় ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দেয় সরকার। সোয়া দুই মাস পর ১ জুন ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট ও সৈয়দপুর রুটে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেয় বেবিচক। পর্যায়ক্রমে যশোর ও বরিশাল বিমানবন্দরেও ফ্লাইট চালুর অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু রাজশাহী ও কক্সবাজারে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত না হওয়ায় ফ্লাইট চালু হচ্ছিল না। অবশেষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর রাজশাহী বিমানবন্দরে প্রয়োজনীয় চিকিৎসক দেওয়ায় রাজশাহী বিমানবন্দরে ফ্লাইট চালুর অনুমতি দেয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ মঙ্গলবার থেকে রাজশাহীতে ফ্লাইট চালু করবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ও নভোএয়ার।
এইদিন রাজশাহী থেকে টাকা দুইটি বেসরকারি বিমান সংস্থা মোট ৪টি ফ্লাইট অপারেটিং করবে। এই দিন সকাল ১০টা ও বিকেল আড়াইটায় ঢাকা থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে ফ্লাইট ছেড়ে গেছে ইউ এস বাংলা। এছাড়াও সকাল সাড়ে ১০টা ও বিকেল সাড়ে ৪টায় ঢাকা থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে ফ্লাইট ছেড়ে গেছে নভোএয়ার। একইভাবে রাজশাহী থেকে প্রতিদিন বেলা ১১টা ২০ মিনিট ও বিকেল সাড়ে ৩টায় মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে ফ্লাইট ছেড়ে গেছে ইউএস বাংলা। পাশাপাশি রাজশাহী প্রতিদিন বেলা ১১টা ৪৫ মিনিট ও বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ফ্লাইট ছেড়ে আসবে নভোএয়ার। এই রুটে দুইটি বেসরকারি কম্পানিই ওয়ানওয়ে টিকিটের সর্বনিম্ন ভাড়া রেখেছে হয়েছে ২৫০০ টাকা।
ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের রাজশাহীর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন বলেন, আমাদের রাজশাহী ঢাকা রুটে বিমান চালুর অনুমতি পেয়েছি। আমরা সব প্রস্তুতি নিয়েছি। টিকিটও বিক্রি করছি। আমাদের খুবই সীমিত বিক্রি হয়েছে। আমাদের ক্ষতি হলেও যাত্রীসেবার জন্য ফ্লাইট পরিচালনা করবো।
তিনি বলেন, আমরা আমাদের যাত্রার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রেখেছি। নেওয়া হয়েছে যাত্রীদের করোনা কালিন নিরাপত্তার ব্যবস্থাও। যাত্রীদের গ্লাভস, মাস্ক দেওয়া থেকে থেকে তাদের তাপমাত্রা মাপার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। এছাড়াও বিমান পরিসেবার নির্দেশনা মোতাবেক একটি সিটের পাশের সিট ফাঁকা রেখে আমরা যাত্রা শুরু করবো।
শাহ্ মখদুম বিমানবন্দরের ম্যানেজার সেতাউর রহমান বলেন, আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখা হয়েছে। প্রতিদিনই আমাদের কর্মচারীরা এখানে আসছেন। তবে ঢাকা থেকে এতদিন কোন নির্দেশনা না পাওয়ায় বিমান সেবা চালু হয় নি। সিভিল সার্জনের পক্ষ থেকে একজন চিকিৎসক দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ঢাকা থেকে আমাদের নির্দেশনাও এসেছে। আজ (মঙ্গলবার) থেকেই রাজশাহী বিমান বন্দরে বিমান সেবা চালু হচ্ছে। তবে, এখানে এখনো জীবানুনাশক টানেল ও থার্মলস্ক্যানার নেই বলে জানান সেতাউর রহমান।


Smiley face