শ্যুটিং কর্মীকে মারধর করায় হিরো আলমের বিরুদ্ধে মামলা

41
Smiley face

শুটিং করিয়ে টাকা না দিয়ে উল্টো দা দিয়ে আঘাত ও মারধর করার অভিযোগে হিরো আলমের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নয়ন মণ্ডল ওরফে জুনিয়র মিশা বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুর রহমান মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাকে নির্দেশ দিয়েছেন।
মিশা ভয়ে আছেন। তাই তিনি আদালতে মামলাটি করেছেন।

নয়ন মণ্ডল গণমাধ্যমকে জানান, তিনি হিরো আলমের সঙ্গে ‘সাহসী হিরো আলম’ ছবিতে সেকেন্ড ভিলেন হিসেবে অভিনয়ের জন্য ১৫ হাজার টাকার চুক্তি করেন। চুক্তি অনুযায়ী গাজীপুরের মনপুরা শুটিং স্পটে অভিনয় করতে যান। সেখানে কিছুদিন অভিনয় করেন। এর মধ্যে ঢাকায় আসার সময় হিরো আলম তার হাতে ৫০০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে বলেন, বাকি টাকা পরে দেব।

জুনিয়র মিশা বলেন, ‘আমি বাসায় এসে কিছুদিন পর হিরো আলমকে ফোন দেই। তিনি ফোনে আমাকে বলেন, কিসের টাকা পাবি তুই। তুই কোনো টাকা পাবি না।’

এরপর থেকেই হিরো আলম আর ফোন ধরতেন না বলে জানান জুনিয়র মিশা।

তিনি বলেন, ‘শেষে গাজীপুরে শুটিং স্থলে গিয়ে টাকা চাইলে হিরো আলম আমাকে শুটিংয়ের দা দিয়ে আঘাত করেন, কিল-ঘুষি মারেন। আমি সেখান থেকে চলে আসি।’

তিনি জানান, এরপর ১৯ জুন এফডিসিতে মানববন্ধনে অংশ নেন তিনি। এসময় হিরো আলম সেখানেও তাকে মারধর করেন।


Smiley face