বিশ্বজুড়ে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় ‘পবিত্র আশুরা’ পালিত

24
Smiley face

ইসলাম ডেস্কঃ বিশ্বজুড়ে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় পালিত হয়েছে পবিত্র আশুরা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত আকারে তাজিয়া মিছিল হয় ইরাক, ইরান, পাকিস্তানে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশে এবার ব্যাপক পরিসরে জনসমাবেশের মাধ্যম মোহাররমের শোক মিছিল আয়োজন করা হয় নি।

প্রায় চৌদ্দশ’ বছর আগের আজকের দিনে ইরাকের কারবালায় বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (স.)’র প্রাণপ্রিয় দৌহিত্র ইমাম হোসেন (আ.) ও তার ৭২ জন সঙ্গী-সাথী সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠা সংগ্রামে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন।

অন্যায়ের কাছে মাথানত না করার কারণেই সেদিন ইমাম হোসেন (আ.) পাপিষ্ঠ ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে নির্মমভাবে শহীদ হন। এ কারণে ১০ মহররম বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর জন্য একটি বেদনাবিধুর দিন।

এ ঘটনা শুধু ইসলামের ইতিহাসেরই করুণ ঘটনা নয়, বিশ্ব ইতিহাসেরও সবচেয়ে মর্মান্তিক ঘটনা। সত্য ও ন্যায়ের জন্য আত্মত্যাগের মহিমায় গৌরবান্বিত আশুরা আজও মুসলিম হৃদয়ে সংগ্রাম ও ত্যাগের গতি সঞ্চার করে।

ইরানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং মাস্ক পড়ে মিছিলে অংশ নিতে বলা হয়। তেহরানে তাজিয়া মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা জানান স্বাস্থ্যবিধি মানা সবার জন্যই মঙ্গলজনক হয়েছে।

পাকিস্তানেও পবিত্র এ দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করছেন শিয়া সম্প্রদায়ের হাজার হাজার মানুষ। ইসলামাবাদের রাস্তায় কড়া নিরাপত্তার মধ্যে শোকের মিছিলে যোগ দেন তারা।

বাংলাদেশে রোববার সকাল থেকেই পুরান ঢাকার হোসেনি দালান এলাকায় বিভিন্ন এলাকা থেকে জড়ো হয় ধর্ম অনুরাগী নারী পুরুষগন। এ সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা একজন একজন করে পরীক্ষা করে আর্চওয়ের মধ্য দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়। ইমামবাড়ার ভেতরে সাজানো হয় তাজিয়া।

এ বছর মিছিল করার সুযোগ না থাকলেও কালো পোশাক পড়ে শোকের আচ্ছাদনে কিশোর ও তরুণ-তরুণীরা ইমামবাড়ায় জড়ো হয়। হাতে আলাম নিয়ে তারা মিছিলের জন্য অপেক্ষাও করে। এরপর ইমামবাড়া চত্বরে আশুরার আনুষ্ঠানিকতা পালন করে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ক্ষেত্রে তেমন কঠোরতা ছিলনা।

হোসেনি দালানের ইমামবাড়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সীমিত পরিসরে কিছু আয়োজন হয়েছে ইমামবাড়ার ভেতরে। রোববার সকাল ১০টায় সীমিত পরিসরে তাজিয়া মিছিল ইমামবাড়া চত্তর প্রদক্ষিণ করেছে। এ ছাড়া সেখানে মহররমের মজলিসও অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় পালিত হয় শোকের অনুষ্ঠান শামে গরিবা।

ওদিকে, ঢাকার বাইরেও সীমিত আকারে আশুরার আনুষ্ঠানাদি পালিত হয়েছে। এ প্রসংগে সাতক্ষিরা থেকে হোসাইনিয়া ইমামবাড়ার সভাপতি মাওলানা শেখ মোস্তাক আলী জানান, তারা সংক্ষিপ্ত আকারে তাজিয়া মিছিল, মর্সিয়া ও মজলিস আয়োজন করেছে এবং সন্ধ্যায় শামে গারিবা পালনের মাধ্যমে শোকের পর্ব শেষ করবেন।


Smiley face