রামেক হাসপাতালে চিকিৎসক ও রোগীর স্বজনদের হাতাহাতি

22
Smiley face

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে এক রোগীর মৃত্যু নিয়ে শিক্ষানবীশ চিকিৎসক ও স্বজনদের মধ্যে হাতাহাতি ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালের ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর মৃত রোগীর ছেলে রাকিবুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দুপুরে তার বিরুদ্ধে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের মারধরের মামলা করেন হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুক্তার হোসেন। এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে আদালতে পাঠিয়েছে নগরীর রাজপাড়া থানা পুলিশ। গ্রেপ্তার রাকিবুল ইসলামের বাড়ি রাজশাহী মহানগরীর সাগরপাড়া এলাকায়।

জানা গেছে, হৃদরোগের আক্রান্ত হয়ে সকাল ৮টায় রাকিবুলের মা পারুল বেগমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর তাকে ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টার দিকে মারা যান তিনি। তার মৃত্যুর পর ছেলে রাকিবুল ওই ওয়ার্ডে কর্তব্যরত শিক্ষানবীশ চিকিৎসকদের ওপর চিকিৎসা অবহেলার অভিযোগ তুলে চড়াও হন।

এ সময় তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। এসময় ওয়ার্ডে অন্যান্যেরা রাকিবুলকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে রাকিবুলকে আটক করে রাজপাড়া থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার পর শিক্ষানবীশ চিকিৎসকদের নিয়ে বৈঠকে বসেন হাসপাতাল পরিচালক। পরে মামলার সিদ্ধান্ত হয়।

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান বলেন, হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুক্তার হোসেন থানায় মামলা করেছেন। এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রাকিবুলকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


Smiley face