তাহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে আব্দুর রাজ্জাক বাবুর পক্ষে গণজোয়ার

471
Smiley face

রাজশাহী বাগমারার তাহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বাগমারা উপজেলা কৃষক লীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বাবুর পক্ষে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন দলীয় নেতা-কর্মীরা। বুধবার দুপুরে বাগমারা উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি প্রভাষক এমদাদুল হক দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলা নির্বাচনী অফিসারের কার্যালয় থেকে আব্দুর রাজ্জাক বাবুর পক্ষে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের সহ-সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন আলী প্রামানিক, বাগমারা উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাশেম আলী, আওয়ামী লীগ নেতা রুস্তম আলী, মাষ্টার ইউসুব আলী, মতিউর রহমান, আলম সরদার, বিপুল কুমার দাস, মুক্তিযোদ্ধা গাজীউর রহমান, টগর আলী ও সমীত্র রায়সহ আরো অনেকে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, আসন্ন তাহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে বুধবার বিকেল পর্যন্ত মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৭ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে মোট ৮ জন সম্ভাব্য প্রার্থী মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন।

আসন্ন নির্বাচন প্রসঙ্গে জনপ্রিয় মেয়র প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক বাবু বলেন, আমি জানগনের জন্য কাজ করতে চাই। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে সেটা হবে জনগনের মেয়র। আমি আমার মেধা, পরিশ্রম দিয়ে এমপি এনামুলের নির্দেশে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে চাই।
আব্দুর রাজ্জাক বাবু আরও বলেন, আমি যেহুতু রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার ছাত্র ছিলাম, তাই তাহেরপুরবাসীকে সাথে নিয়ে এক আধুনিক শৈল্পিক তাহেরপুর গড়তে চাই।

বাগমারা উপজেলা নির্বাচন অফিসার দুলাল হোসেন জানান, তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত তাহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৭ জানুয়ারী, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে ১৯ জানুয়ারী, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন নির্ধারন করা হয়েছে ২৬ জানুয়ারী এবং ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী।
তাহেরপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শহীদুল্লাহ খন্দকার জানায়,আমরা পরিবর্তন চাই।যে উদ্যেশে পৌরসভা বাস্তবায়িত হয়েছে তা বাস্তবায়ন হয়নি। তাহেরপুরের মানুষ বর্তমান মেয়র এর কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ এবং জিম্মি। এজন্য আমরা তাহেরপুরবাসী বাগমারা উপজেলা কৃষক লীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বাবু কে মেয়র হিসেবে দেখতে চাই।

তাহেরপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের প্রবিণ আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মেম্বার মুনসুর পিয়াদা জানান,বর্তমান মেয়র সাধারণ মানুষের বাক-স্বাধীনতা হরন করেছে।তাই আমরা পরিবর্তন চাই।
তাহেরপুর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের মহিলা ভোটার শাহানাজ বেগম বলেন,বর্তমান মেয়র আবুল কালাম আজাদ আত্মসমর্পণ না করা বাগমারা থানার তালিকাভুক্ত চরমপন্থী। চরমপন্থী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পায়ে গুলিও খেয়েছেন।
সে যদি আত্মসমর্পণ না করে মনোনয়ন পেতে পারে তাহলে আর্ট বাবু আত্মসমর্পণ করে কেনো মনোনয়ন পাবে না!?
আমরা তাহেরবাসী চাই আব্দুর রাজ্জাক সরকার বাবু কে আসন্ন তাহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেয়া হোক।
আর্ট বাবুকে কেনো মনোনয়ন দেয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তাহেরপুরর পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সুমিত রায় জানায়, বর্তমান মেয়র আবুল কালাম আজাদ ও তার ক্যাডারদের অত্যাচারে তাহেরপুরবাসী অতিষ্ঠ। পুরো তাহেরপুরবাসী অস্ত্রের ভয়ে মুখ খুলতে পারেনা। অন্যায়,অত্যাচার-অবিচার ও জিম্মিদশা থেকে মুক্তি পেতে আর্ট বাবু কে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয়া দরকার।আর্ট বাবুকে নৌকা প্রতিকে মনোনয়ন দিলে তাহেরপুরবাসী স্বাধীনতা অর্জন করবে।
তাহেরপুর পৌরসভার 2 নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বিপুল দাস বাউল জানায়, স্বাধীনতার স্বপক্ষের আপামর জনসাধারণের জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি চাওয়া বাবু ভাইকে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে যেনো মনোনয়ন দেয়া হয়।


Smiley face