একটা জায়গায় সন্তুষ্টি আছে মুমিনুলের

25
Smiley face

টেস্ট জিততে পেসারদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের পেসাররা কী পারবেন শ্রীলঙ্কায় টেস্ট জেতাতে? অধিনায়ক মুমিনুল হক কিন্তু আশাবাদী। জানালেন, পেসারদের নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট।

এবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদ, আবু জায়েদ রাহী, ও তাসিকন আহমেদ ছাড়াও স্কোয়াডে আছেন প্রথমবার সুযোগ পাওয়া শরিফুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ও মুকিদুল ইসলাম। ২১ জনের প্রাথমিক স্কোয়াডে সাত পেসার নিয়ে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে উড়াল দেবে বাংলাদেশ দল। আজ (রবিবার) সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল বলেছেন, ‘আপনি যদি সর্বশেষ চার-পাঁচটা সিরিজ দেখেন, আমার কাছে মনে হয় আপনিও আমার সঙ্গে একমত হবেন। পেস বোলাররা খুবই ভালো করছে, এমনকি স্পিনাররাও। ওই হিসেবে চিন্তা করলে আমি বোলারদের নিয়ে খুব খুশি।’

অবশ্য সঙ্গে এটাও জানিয়ে রাখলেন, কেবল পেসাররা নয়, দায়িত্ব নিতে হবে ব্যাটসম্যানদেরও, ‘এখানে ব্যাটিংটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কেবল বোলিং নয়, ব্যাটিংও ভালো করতে হবে। শেষ দুই-তিন সিরিজে ব্যাটিং তেমন আশানুরূপ হয়নি। আমার কাছে ব্যাটিংটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

শ্রীলঙ্কা সিরিজে ঠিক কতজন পেসার খেলবেন, এ ব্যাপারে এখনই সিদ্ধান্ত জানাতে পারেননি বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক। তবে শ্রীলঙ্কার কন্ডিশন যেমন, তাতে করে স্পিনবান্ধব উইকেট হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। মুমিনুল বলেছেন, ‘আমরা চট্টগ্রাম টেস্টের স্কোয়াডে পাঁচ-ছয়জন বোলার নিয়েছি। ওখানে কন্ডিশনের কারণে আমরা খুব বেশি পেসার খেলাইনি। শ্রীলঙ্কাতে উইকেটের কন্ডিশন বুঝে আমি দুই থেকে চারজন পেসার হয়তো খেলাবো।’

বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কায় সবশেষ টেস্ট খেলেছে ২০১৭ সালে। সেবার গলে প্রথম টেস্ট হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে নিজেদের শততম টেস্টে স্মরণীয় জয় পায় বাংলাদেশ। এবার কি এমন কিছু হবে? মুমিনুলের কূটনৈতিক উত্তর, ‘দেখুন ভবিষ্যৎ আপনি বলতে পারবেন না। প্রতিটা দিন, প্রতিটা সেশন যদি আমরা জিততে পারি, ভালো খেলতে পারি, তাহলে ফলাফল আমাদের দিকে আসবে।’


Smiley face